শুক্রবার, ১৮ Jun ২০২১, ১১:৫১ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বরিশালে রবি ম্যানেজার পরিচয়ে ২০ হাজার টাকা হাতিয়ে নিল প্রতারক চক্র। ভাইয়ের অপরিপুর্ন কাজ পুরন করতে ২৮ নং ওয়ার্ডে আলোচনায় হুমায়ন কবির। আজ ফাইজাতুল আয়শা আভার শুভ জন্মদিন। ওয়াল্ড ভিশন বাংলাদেশ বরিশাল শাখার উদ্যোগে বিশ্ব পরিবেশ দিবস পালিত। বরিশাল মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতিকে অব্যাহতি, কমিটি বিলুপ্ত সাবেক কাউন্সিলর জাকির হোসেন জেলাল মারা গেছেন কলেজছাত্রীর মৃত্যু: মামলা তুলে নিতে অর্থের প্রস্তাবসহ হুমকি। বরিশালে ঘূর্ণিঝড় ‘ইয়াস’র তান্ডব শুরু বরিশালের হিজলায় বিনা নোটিশে পোল্টি মুরগীর খামারের লাইন কর্তনে ৩শো মুরগির প্রাণহানি। ফের ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরায়েলি হামলা আজ তরুণ সাংবাদিক আল আমিন গাজীর শুভ জন্মদিন। যুদ্ধবিরতির পর ফিলিস্তিনিদের ‘বিজয়োল্লাস’ সাংবাদিক রোজিনার মুক্তির দাবিতে বরিশাল বিভাগীয় অনলাইন প্রকাশক ও সম্পাদক পরিষদের মানববন্ধন সাংবাদিক রোজিনার মুক্তির দাবিতে বরিশাল মেট্রোপলিটন প্রেসক্লাবের মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সাংবাদিক রোজিনার মুক্তির দাবিতে বরিশাল তরুণ সাংবাদিক ঐক্য পরিষদের বিবৃতি। ফিলিস্তানে সেনাবাহিনী পাঠাতে প্রস্তুত মালয়েশিয়া রোজিনাকে হেনস্তা, গ্রেপ্তার ও মন্ত্রণালয়ের ব্যাপারে যা বললেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী সাংবাদিক রোজিনার মুক্তির দাবিতে শাহবাগ থানায় সাংবাদিকদের অবস্থান কিশোরকে বেঁধে নির্যাতন, দেওয়া হয় বৈদ্যুতির শক বরিশালে বাসদ কর্মীর মামলায় আ’লীগ কর্মী গ্রেপ্তার, প্রতিবাদে থানা ঘেরাও করে বিক্ষোভ
কলেজছাত্রীর মৃত্যু: মামলা তুলে নিতে অর্থের প্রস্তাবসহ হুমকি।

কলেজছাত্রীর মৃত্যু: মামলা তুলে নিতে অর্থের প্রস্তাবসহ হুমকি।

 

নিজস্ব প্রতিবেদক /// রাজধানী ঢাকার গুলশানের অভিজাত ফ্ল্যাট থেকে কলেজছাত্রী মোসারাত জাহান মুনিয়ার (২১) রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনা ধামাচাপা দিতে নানা অপকৌশল নেওয়া হচ্ছে।

বড় অঙ্কের টাকার প্রলোভন দেখিয়েও সমঝোতায় রাজি না হওয়ায় ভুক্তভোগীর বড় বোন ও ভগ্নিপতির বিরুদ্ধে নানা কুৎসা ছড়ানো হচ্ছে। যে কোনো অঙ্কের টাকার বিনিময়ে মামলা তুলে নিতে ২৯ মে তারিখের মধ্যে গোপন বৈঠকের প্রস্তাবে রাজি না হলে বাদীর পরিবারকে ‘বড় ধরনের বিপদ’র হুমকিও দেওয়া হচ্ছে।

আলোচিত এ মামলার প্রধান আসামি ও মুনিয়ার প্রেমিক বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সায়েম সোবহান আনভীর বিভিন্ন ব্যক্তির মাধ্যমে এসব করাচ্ছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

মুনিয়ার অপমৃত্যুর মামলার অগ্রগতি সম্পর্কে জানতে চাইলে ডিএমপির গুলশান বিভাগের ডিসি সুদীপ কুমার চক্রবর্তী সাংবাদিকদের বলেন, এখনো ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পাওয়া যায়নি। চাঞ্চল্যকর মামলাটি পুলিশ গুরুত্বসহকারে তদন্ত করছে। ছোট-বড় প্রত্যেকটি বিষয় আমলে নেয়া হচ্ছে। তদন্তে নিশ্চিত হলে জড়িত অপরাধীদের আইনের মুখোমুখি করা হবে।

এদিকে মামলা তুলে নিতে চাপ দেওয়ার কথা স্বীকার করে মুনিয়ার বড় বোন নুসরাত জাহান তানিয়া ও তার স্বামী মিজানুর রহমান সাংবাদিকদের জানান, টাকার বিনিময়ে মামলা তুলে নিতে ও চুপ থাকার প্রস্তাব গত ২৯ এপ্রিল থেকে আসা শুরু হয়েছে। সর্বশেষ গত বৃহস্পতিবার একই ধরনের প্রস্তাব আসে। কিন্তু আমরা তা ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করেছি।

এরপরও তারা প্রস্তাব পাঠিয়ে যাচ্ছে- কোনো মিডিয়া কিংবা সিসি ক্যামেরা ছাড়া যেন আমরা ২৯ মে-এর মধ্যে গোপন বৈঠকে বসি অন্যথায় বড় ধরনের বিপদে পড়তে হবে আমাদের। আমরা বলেছি, গণমাধ্যমের সামনে কিংবা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বসুন্ধরা এমডি আনভীরকে তার অপরাধ স্বীকার করতে হবে।

নুসরাত ও মিজান আরও জানান, ওইসব প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় আমাদের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নানা অপপ্রচার ও কুৎসা রটানো হচ্ছে। অসৎ উদ্দেশ্যে আনভীর তার লোকজনকে দিয়ে বিভিন্ন পেইজ থেকে বুস্ট করে কুৎসা ছড়িয়ে দিচ্ছেন বলে অনুমান করা যায়। মুনিয়ার হত্যার ঘটনা ভিন্নখাতে প্রবাহিত ও আমাদের মানসিকভাবে দুর্বল করতে অভিযুক্ত বসুন্ধরা গ্রুপ ওই সব জঘন্য প্রচারণা করাচ্ছে বলে ধারণা করতে পারি।

এদিকে ফরেনসিক ল্যাবে পাঠানো মুনিয়ার মরদেহের ভিসেরা, ডিএনএ ও মাইক্রোবায়োলজির পরীক্ষার রিপোর্ট প্রস্তুত হয়নি বলে জানা গেছে। ঘটনাটি স্পর্শকাতর হওয়ায় একটু বেশি সময় লাগছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

ঢামেক হাসপাতাল সূত্রও জানিয়েছে, অন্যকিছু রিপোর্টের কারণে এখনো ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন প্রস্তুত হয়নি। তবে শিগগিরই ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন প্রস্তুত করা হবে।

তদন্ত সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন, এখন পর্যন্ত আলোচিত এই ঘটনায় সাতজনের লিখিত জবানবন্দি নেয়া হয়েছে। তারা হলেন- দুই নিরাপত্তাকর্মী কুদ্দুস, আইয়ুব, কেয়ারটেকার আতিক, ফ্ল্যাট মালিক ইব্রাহীম আহমেদ ও তার স্ত্রী শারমিন। এ ছাড়া আরো দুজন। পুলিশের তদন্তে অনেকটা সম্পৃক্ততা ফুটে ওঠায় ফেঁসে যাচ্ছেন অভিযুক্ত আনভীর।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত ২৬ এপ্রিল গুলশানের ১২০ নম্বর সড়কের ১৯ নম্বর বাসার একটি ফ্ল্যাট থেকে মোসারাত জাহান মুনিয়ার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় মুনিয়ার বড় বোন নুসরাত জাহান তানিয়া ‘আত্মহত্যা’য় প্ররোচনার অভিযোগ এনে বসুন্ধরার ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীরের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন।

তথ্য সূত্র: মানবকণ্ঠ।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2017